Ancient Indian History protestant movement : The rise of Jainism

CategoriesAncient Indian HistoryTagged , ,

ANCIENT INDIAN HISTORY প্রতিবাদী আন্দোলন

  • খ্রিস্টপূর্ব ষষ্ঠ শতক  হল ভারতে ধর্মীয় প্রতিবাদী আন্দোলনের যুগ। 
  • বৈদিক ধর্মমতের বিরুদ্ধে নানা প্রতিবাদ দেখা দেয় এবং নতুন নতুন ধর্মমতের উদ্ভব হয়। 
  • বৌদ্ধ গ্রন্থ অনুযায়ী ৬৩ টি প্রতিবাদী ধর্মের সংখ্যা ছিল। 
  • প্রধান ধৰ্ম ছিল  দুটি — বৌদ্ধ ধৰ্ম ও জৈন ধর্ম। 

অন্যান্য উল্লেখযোগ্য সম্প্রদায় গুলি হল – শ্রমণ ,পরিব্রাজক ও আজীবিক।

জৈন ধৰ্ম   

*  মোট  চব্বিশ (২৪) জন তীর্থঙ্কর ছিলেন ,যাঁরা জৈনধর্মের প্রবর্তন বা প্রচার করেছেন। 

*  প্রথম তীর্থঙ্কর  ছিলেন ঋষভদেব বা ঋষভনাথ। 

*   জৈনধর্মের প্রকৃত প্রবর্তক ছিলেন পার্শ্বনাথ বা পরেশনাথ।

*   তিনি ছিলেন  তেইশ তম (২৩)  তীর্থঙ্কর। [ কাশীর এক রাজবংশে খ্রিস্টপূর্ব  অষ্টম শতকে জন্ম গ্রহণ করেছিলেন।]

*   ত্রিশ বছর বয়সে তিনি সংসার ত্যাগ করেছিলেন।

*   পার্শ্বনাথ চতুর্যাম প্রবর্তন করেছিলেন। — অহিংসা ,সত্য ,অচৌর্য (চুরি না করা ) ও অপরিগ্রহ (বিষয় সম্পত্তির প্রতি লোভ না করা )

* জৈনধর্মের প্রকৃত স্থাপয়িতা হলেন মহাবীর। ( চব্বিশতম ও শেষ তীর্থঙ্কর )

* আনুমানিক ৫৪০ খ্রিস্টপূর্বাব্দে বৈশালীর কুন্দগ্রাম বা কুন্দপুরে এক ক্ষত্রিয় রাজকুলে মহাবীর জন্মগ্রহন করেন। 

* মহাবীর এর পিতৃদত্ত নাম হল বর্ধমান। মহাবীর এর পিতার নাম সিদ্ধার্থ এবং মাতা ছিলেন লিচ্ছবি রাজকন্যা ত্রিশলা। মহাবীর এর স্ত্রী এর নাম হল যশোদা এবং কন্যার নাম প্রিয়দর্শনা। 

* মহাবীর ত্রিশ বছর বয়সে গৃহত্যাগী হয়েছিলেন। ১২ বছর কঠোর সাধনার পর ঋজুপালিকা নদীর তীরে এক শালগাছের নিচে তিনি কৈবল্য বা সিদ্ধিলাভ করেছিলেন। 

* মহাবীরের প্রথম শিষ্য ছিলেন তাঁর জামাতা — জামালি। 

*  ৪৬৮ খ্রিস্ট পূর্বাব্দে ৭২ বছর বয়সে মগধের রাজগৃহের কাছে পাবা নগরীতে তিনি অনশনে স্বেচ্ছামৃত্যু গ্রহণ করেন। 

* পার্শ্বনাথ প্রবর্তিত চতুর্যাম এর সঙ্গে তিনি ব্রহ্মচর্য যুক্ত করেন যা পঞ্চমহাব্রত  নামে পরিচিত। 

* স্থূলভদ্রের নেতৃত্বে পাটলিপুত্রে আহুত সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পার্শ্বনাথের  ১৪ টি অনুশাসনের মধ্যে ১২ টি অনুশাসন গৃহীত হয়।  এগুলি একত্রে দ্বাদশ অঙ্গ নামে পরিচিত। (জৈন দের প্রধান ধর্মগ্রন্থ )

* সহজ সরল ভাষা হিসাবে প্রাকৃত ভাষাকে ধর্মপ্রচারের ভাষা হিসাবে জৈনরা বেছে নিয়েছিলেন। 

মহাবীর এর মূল ধর্মোপদেশ ১৪ টি খন্ডে সংরক্ষিত।এগুলি ‘পূর্ব ‘নামে পরিচিত।  

* অন্যান্য জৈন গ্রন্থগুলি হল -ভদ্রবাহু রচিত কল্পসূত্র,জৈন আগম বা জৈন সিদ্ধান্ত ,পরিশিষ্ট পার্বন।

*  প্রথম জৈন সম্মেলন হয়েছিল ৩০০ খ্রি পূর্বাব্দে।

*  সম্মেলনের স্থান ছিল – পাটলিপুত্র।  এই সম্মেলনে দ্বাদশ অঙ্গ সঙ্কলিত হয়েছিল। 

*  জৈন ধৰ্ম  দুটি ভাগে বিভক্ত হয়েছিল —

১) দিগম্বর — যারা মহাবীরের ন্যায় নগ্নতা কে গ্রহণ করেছিলেন। 

২) শ্বেতাম্বর  —- পারেশনাথের ন্যায় যারা স্বেত বস্ত্র পরিধান করতেন। 

* যেসমস্ত রাজারা জৈন ধর্মের পৃষ্ঠপোষকতা করতেন তাদের মধ্যে বিম্বিসার ,অজাতশত্রু , চন্দ্রগুপ্ত মৌর্য (শেষ জীবনে) , কলিঙ্গরাজ খারবেল অন্যতম। 

About the author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *